আপনি দেখছেন "ছোট গল্প"

অভ্র’র প্রতিদান : পর্ব-২

রুমমেটদের কথা অক্ষরে অক্ষরে পালন করা অভ্র’র নিত্য দিনের রুটিন হয়ে গ্যাছে, আজও ঠিক তেমনটিই হলো। নিতু ফেরদৌস বাবু রিপন বেশ আনন্দেই আছে। আনন্দ হইচই করতে করতে নিউমার্কেট এলাকায়। প্রথমে ঘুরেঘুরে দেখছে কে কি কিনবে। টিনসেডের ছাউনী করা মার্কেটটি বেশ বড়সড়। টি-শার্টের দোকানে ঢুকে নিতু আর বাবু দু’জনে দুটি টি-শার্ট কিনে দোকানদারকে টাকা দিতে না দিতেই হঠাৎ করে পড়ন্ত বিকেল যেন চৈত্রের খা খা দুপুর হয়ে গেলো। মূহুর্তেই হইচই। লোকদের ছুটোছুটি, যে যার মতো ছুটে চলেছে। নিতু আর বাবু দৌড়ে বের হলেও ফেরদৌস আর রিপন এখনো বের হতে পারেনি। বাইরে থেকে নিতু আর বাবু দেখে যাচ্ছে মার্কেটের ভেতর থেকে কালো … বিস্তারিত পড়ুন

অভ্র-র প্রতিদান : পর্ব -১

আগামীকাল ঈদের ছুটি, খুব সকাল সকাল ঘুম থেকে উঠে রওনা হবো গ্রামে। কতোদিন মায়ের সাথে দ্যাখা হয় না। মা জানি কতোটা অস্থির হয়ে পথ গুনছে প্রতিদিন। মোবাইলে কথা বললেই মা কাদুকাদু স্বরে জিজ্ঞেস করে খোকা তোর ছুটি হবে কোনদিন? কতোদিন তোর দুষ্টুমিতে বিরক্ত হই না। তোর দুষ্টুমি খুব মিস করি।

কথাগুলো ভাবতে ভাবতে রাস্তা ভুল করে কখন যে মাঝ মাঠে চলে এসেছে বুঝতেই পারেনি নিতু। কলেজ মাঠটি ক্লাসরুমের সামনে হয়ে ভালোই হয়েছে, তা না হলে যে কি হতো কে জানে। চৈত্রের খবর নেই কিন্তু একি রোদ্দুর, মুখ মন্ডল জ্বলে পুড়ে যাচ্ছে। আকাশের দিকে তাকিয়ে এমনটাই বলতে ছিলো নিতু। বা হাত উঁচু … বিস্তারিত পড়ুন

বড়াই!

পর পর দুইবার বিশ্ব সুন্দরী প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন আব্দুল কুদ্দুসের মেয়ে মুক্তা, যার রুপ যৌবনে চোখে ছানী পড়ে যেতো সাধারণের। একটু রোদ্দুরে গেলে মুখ মন্ডলের চামড়া ফেটে যেন রক্ত বের হবে, কতো যুবক যে রাস্তার পাশের গর্তে পরে হাত পা ভেঙেছে তার হিসেব নেই।

তবুও সময় বয়ে চলে নিজস্ব গতিতে, সময়ের কাছে সবাই পরাজিত, কেউ বুঝে কেউ বুঝেও বুঝে না সময়ের মূল্য। একদিন এই মুক্তার রুপ যৌবন ও থাকবে না, থাকবে না নিজেকে বয়ে বেড়ানোর শক্তি। কতোজনাই এলো আর গেলো কেউ ধরে রাখতে পারেনি, পারবেও না। আজকের বিদ্যা বালান, স্বরা ভাস্কর, মাধুরী আর সেদিনের শ্রীদেবী। সবাই একদিন পরিত্যক্ত ডাস্টবিন হয়ে পরে রবে, … বিস্তারিত পড়ুন

পাপীর সাজা

তুমিই ছিলে আমার প্রথম সিড়ি, যে সিড়ি বেয়ে আমি রঙীন স্বপ্ন দেখেছিলাম পৃথিবীর। আজও তুমিই হলে আমার পরবর্তী সিড়ি, যে সিড়ি বেয়ে আজ আমি প্রতিষ্ঠিত। আজ কী নেই আমার, অর্থ, যশ, খ্যাতি, সম্পত্তি, গাড়ি বাড়ি; সবই আছে, ক্যানো না আজ আমি প্রতিষ্ঠিত।

কিন্তু ভুলেই গিয়েছিলাম জোয়ার ভাটার কথা, অহংকারের কথা, নিজেকে হারিয়ে ফেলার কথা। অনেকটা বিরতির পর আজ ভাটার সামান্য ঢেউয়ের শব্দ আমাকে বিচলিত করে তুলেছে, বুঝতে পারছিলাম আমার নিন্মমুখী সিড়ির দৃশ্যপট। বাড়িতে ফেরার পর যখন তুমি আমাকে বুঝতে জিজ্ঞেস করতে বিবর্ণ মুখের বর্ণনা, আমি মুখ ফিরিয়ে তোমাকে আড়াল করে দিতাম। একাএকাই যুদ্ধ করে যাচ্ছিলাম।

হঠাৎ করেই আজ আবার তুমি এলে, শর্ত … বিস্তারিত পড়ুন