বইমেলায় আসছে রুদ্র আমিন এর কাব্যগ্রন্থ “অধরা”

বই নিউজ

অমর একুশে গ্রন্থমেলা-২০২০ এর প্রথম দিন থেকেই উচ্ছ্বাস প্রকাশনীর স্টলে থাকছে কবি, প্রাবন্ধিক, গল্পকার ও সাংবাদিক রুদ্র আমিন-এর কাব্যগ্রন্থ’ “অধরা”। কবিতা সম্পর্কে বলতে গিয়ে তিনি আরও বলেন- জীবন মানেই বাহুল্য বাতাস, তেমনি কবিতা হচ্ছে জীবনের বাহুল্য বাতাস। আমি মনে করি সকল শ্রেণীর পাঠক, লেখকদের কেবল কবিতা’ই আধ্যাত্মিক খোরাক দিতে পারে। কবিতার প্রসব যন্ত্রণা এতোটাই যা একজন মা তার সন্তান জন্ম দেয়ার সময় অনুভব করে তেমনি একজন কবিও তেমনটা অনুভব করে একটি কবিতা প্রসব করে যখন। আমার দৃষ্টিতে লেখালেখির জগতে কবিতা লেখাই সবচেয়ে জটিল ও কঠিন ব্যাপার। সবাই যেমন কবি হতে পারে না তেমনি সবাই কবিতার পাঠকও হতে পারে না।

একজন কবি তখনি সার্থক, যখন কবি’র কোনো একটি কবিতার একটি চরণ নিয়ে ভাবনার সাগরে ডুবে যাবে পাঠক। ভিন্ন ভিন্ন পাঠকের ভিন্ন ভিন্ন অভিব্যক্তি প্রকাশ পাবে। হোক সে সহজ এবং সরল কথা। কবিতা নিয়ে প্রায় ভাবি, বসে থাকি কিন্তু কবিতা লিখতে পারি না। সেই উপলব্ধি থেকে বলতে পারি। কবি কখনো কবিতা লিখতে পারে না, যতক্ষণ কবিতা একজন কবি-কে লিখতে সাহায্য না করে। কবিতাই কবিকে কবিতা লেখায় আর কবি ততক্ষণে কবি হয়ে উঠে না, যতক্ষণ সে কবিতার প্রেমে না পড়ে। কোনো কবিই কবিতা লিখতে পারেনি, আসলে কবিতাই কবিকে কবিতা লিখতে বাধ্য করে।

“অধরা” কাব্যগ্রন্থ সম্পর্কে প্রকাশক লিখেছেন-বাহারি পদের ভালোবাসার শাব্দিক পসরা সাজানোর কাজ একজন কবিকেই মানায়। তাঁর কবিতা, বোধ, ভাবনা, ভাষা, দর্শন, প্রকাশ নিয়মিত মুগ্ধ করে যাচ্ছে কোন রকম বিচ্যুতিহীন। চমকে দেওয়া ভাষাশিল্প, অরূপ গাঁথুনি আর নিঃসঙ্কোচ প্রকাশে তাঁর কবিতাকে কখনোই মনে হয়না পরের কিছু, কেবলই নিজের। কবিতার প্রতি অবাক ভালোবাসা নিয়ে কবি রুদ্র আমিন এর চতুর্থ কাব্যগ্রন্থ এবং কবি’র পঞ্চম বই প্রকাশ পাচ্ছে এবারের বইমেলায়। রুদ্র আমিন মূলত একজন কবি। মূলত তার কবিতার প্রধান অনুষঙ্গ হচ্ছে প্রেম-ভালোবাসা। ‘অধরা’ নামের মাঝেই আমরা ধারণা করতে পারি যে, তিনি এবারের প্রকাশিত বইটিতে শুধু ভালোবাসাকেই বেঁধে রাখছেন না, যেহেতু এটি একটি সিরিজ কবিতার বই। এই বইয়ে কবি তিনটি অধ্যায়ে ভাগ করেছেন — ১) অধর প্রেম, ২) বিদায়ানুরাগ এবং ৩) পরিণতি।

কাব্যগ্রন্থ পাঠে কবি, লেখক ও চিকিৎসক ডা.জয়প্রকাশ সরকার বলেন— নিজস্ব স্বর প্রতিষ্ঠাই যে কোন ধ্রুব লেখক কিংবা কবির মূল প্রতিপাদ্য বিষয়। সম্প্রতি তরুণ কবি রুদ্র আমিনের অধরা সিরিজের বেশ কয়েকটি লেখা পড়ার সুযোগ পেলাম।বেশ ভালো লাগলো। ছন্দের গতানুগতিক ধারা ভেঙে যেভাবে ক্লাসিকতা প্রয়োগ করেছেন তাতে সত্যিই মুগ্ধ আমি। লেখাগুলোতে যে নব্য ভাবের পরশ পেয়েছি, তা এক কথায় অসামান্য। সত্যিকারের কবিতানুরাগীরা অধরা সিরিজ পড়ে আনন্দ পাবেন নির্দ্বিধায় বলতে পারি। কবির এই গতিময় পথচলা অটুট থাকার কামনায়-

উচ্ছ্বাস প্রকাশনীর স্টল নং – ২৪২-এ পাওয়া যাবে বইটি। এ বইয়ের প্রকাশক আহমেদ মনির, প্রচ্ছদ : রুদ্র আমিন। এটি রুদ্র আমিন’র ৫ম বই (৪র্থ কাব্যগ্রন্থ)।

রুদ্র আমিন

মোঃ আমিনুল ইসলাম রুদ্র, জন্ম : ১৪ জানুয়ারি, ১৯৮১। ডাক নাম রুদ্র আমিন (Rudra Amin)। একজন বাংলাদেশ কবি, লেখক ও সাংবাদিক। নক্ষত্র আয়োজিত সৃজনশীল প্রতিযোগিতা-২০১৬ কবিতা বিভাগে তিনি পুরস্কার গ্রহণ করেন। জন্ম ও শিক্ষাজীবন মোঃ আমিনুল ইসলাম রুদ্র ১৯৮১ সালের ১৪ জানুয়ারি মানিকগঞ্জ জেলার ঘিওর উপজেলার ফুলহারা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা মোঃ আব্দুল হাই ও মাতা আমেনা বেগম। পরিবারে তিন ভাইয়ের মধ্যে তিনি বড়। প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শিক্ষা জীবন কেটেছে খাগড়াছড়ি এবং বগুড়া সদর উপজেলায়। বগুড়ার আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন পাবলিক স্কুল ও কলেজ থেকে এসএসসি ও মানিকগঞ্জের দেবেন্দ্র কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন। এরপর তিনি ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড টেকনোলজি থেকে ডিপ্লোমা ইন কম্পিউটার গ্রাফিক্স ডিজাইন কোর্স সম্পন্ন করেন। কর্মজীবন মূল পেশা থেকে দূরে সরে গিয়ে তিনি লেখালেখি এবং সাংবাদিকতায় জড়িয়ে পড়েন। তিনি প্রায় সব ধরনের গণমাধ্যমে কাজ করেছেন। কাজ করেছেন দৈনিক ও সাপ্তাহিক পত্রিকায়। বর্তমানে তিনি জাতীয় দৈনিক আলোকিত প্রতিদিন এর ষ্টাফ রিপোর্টার ও অনলাইন নিউজপোর্টাল নববার্তা.কম এর প্রকাশক ও সম্পাদক হিসেবে কর্মরত আছেন। তিনি উইকিপিডিয়াকে ভালোবেসে উইকিপিডিয়ায় অবদানকারী হিসেবে উইকিপিডিয়া অধ্যয়নরত আছেন। প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ : যোগসূত্রের যন্ত্রণা (২০১৫); আমি ও আমার কবিতা (২০১৬); বিমূর্ত ভালোবাসা (২০১৮)। প্রকাশিত গল্পগ্রন্থ : আবিরের লালজামা (২০১৭)।

https://rudraamin.com

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।